অসকার নিয়েমায়ের: শ্রদ্ধাহীন বক্রতায় কংক্রীটের সাম্বা

( গ্রেট থিংকার্স প্রজেক্ট থেকে পরীক্ষামূলকভাবে : আসমা সুলতানা ও কাজী মাহবুব হাসান)

1_aqoN9Vo1nlZ5kv45_t5buQঅসকার নিয়েমায়ের

ভ্রমণের  হতাশাজনক দিকগুলোর একটি হচ্ছে ভিন্ন ভিন্ন বহু এলাকায় পৃথিবীকে দেখতে আসলে একই রকম মনে হয়। টোকিওর ডাউনটাউনের উচু ভবনগুলোকে থেকে ফ্রাঙ্কফুর্ট অথবা সিয়াটলের উঁচু ভবনগুলো থেকে আলাদা করা খুবই কঠিন। আর বিষয়টি কাকতলীয় নয়। আধুনিক স্থাপত্যকলার ভিত্তিতে আছে সেই ধারণাটি: সর্বত্র দালানগুলো যৌক্তিকভাবে একই রকম দেখতে হওয়া উচিৎ। আধুনিকতাবাদের সূচনাপর্বের গুরুত্বপূর্ণ দিশারীরা যেকোনো ধরনের আঞ্চলিকতাবাদের বিরুদ্ধে  তাদের তিক্ত বিরোধীতায় সবাই মূলত একতাবদ্ধ ছিলেন। তাদের দৃষ্টিতে যা প্রতিক্রিয়াশীললোকাচারে দূষিত, আর পুরোপুরিভাবেই সাদামাটা ছিল। যদি বাইসাইকেল, টেলিফোন, উড়োজাহাজ (নতুন যুগের অগ্রদূত সব) স্থানীয় কোনো শৈলীতে সংগঠিত করা না যায়, তাহলে দালানের ক্ষেত্রেই বা সেটি কেন করতে হবে? সুতরাং শ্যালে, উইগওয়াম আর গারগয়েল, সব কিছু নিপাত যাক। 

Continue reading “অসকার নিয়েমায়ের: শ্রদ্ধাহীন বক্রতায় কংক্রীটের সাম্বা”

অসকার নিয়েমায়ের: শ্রদ্ধাহীন বক্রতায় কংক্রীটের সাম্বা