জেরী কয়েন এর হোয়াই ইভোল্যুশন ইজ ট্রু : পঞ্চম অধ্যায় (দ্বিতীয় পর্ব)

2
 ছবি:  নিউট্রাল বিবর্তনের একটি স্কীমাটিক ডায়াগ্রাম ( বড় করে দেখার জন্য ক্লিক করুন);  ইলাসট্রেশন: Tommy Moorman

জেরী কয়েন এর হোয়াই ইভোল্যুশন ইজ ট্রু : পঞ্চম অধ্যায় ( দ্বিতীয় পর্ব)

(অনুবাদ প্রচেষ্টা: কাজী মাহবুব হাসান)

Why Evolution Is True: Jerry A. Coyne

প্রথম অধ্যায়
দ্বিতীয় অধ্যায় : প্রথম পর্ব  দ্বিতীয় পর্ব তৃতীয় পর্ব চতুর্থ পর্বশেষ পর্ব
তৃতীয় অধ্যায়: প্রথম পর্ব , দ্বিতীয় পর্ব , তৃতীয় পর্ব , শেষ পর্ব
চতুর্থ অধ্যায়: চতুর্থ অধ্যায়:  প্রথম পর্ব ; দ্বিতীয় পর্বশেষ পর্ব
পঞ্চম অধ্যায়:  প্রথম পর্ব

আরো একটি আলোচনা:  ন্যাচারাল সিলেকশন বা প্রাকৃতিক নির্বাচনকে যাচাই করে দেখার পরীক্ষা:

অধ্যায় ৫ : বিবর্তনের ইন্জিন

Life results from the non-random survival of randomly varying replicators. Richard Dawkins

বিবর্তন..  যখন প্রাকৃতিক নির্বাচন এর মাধ্যমে ঘটে না ‍: 

এবার সংক্ষেপে একটু অন্য প্রসঙ্গ নিয়ে আলোচনা করা যায়, কারন আমাদের অনুধাবন করার প্রয়োজন আছে যে বিবর্তনীয় পরিবর্তনের জন্য শুধু প্রাকৃতিক নির্বাচনই একমাত্র উপায় না। বেশীর ভাগ জীববিজ্ঞানী বিবর্তনকে সংজ্ঞায়িত করেন কোন একটি জনসংখ্যায় অ্যালীলদের  ( কোন জীনের বিকল্প সংষ্করণ) আনুপাতিক হারের পরিবর্তনকে। যেমন ধরুন, জীনের ’হালকা রঙ’ এর উপস্থিতির হার যখন কোন ইদুর জনগোষ্ঠীতে বৃদ্ধি পায়, সেই জনগোষ্ঠীতে তাদের চামড়ার রং বিবর্তিত হয়। কিন্তু এই পরিবর্তন অন্যভাবেও হতে পারে। প্রজাতির প্রতিটি সদস্যদের কোন একটি জীনের দুটি করে কপি থাকে, তারা হুবুহু একই হতে পারে আবার ভিন্নও হতে পারে। যখনই যৌন প্রজনন হচ্ছে, পিতা বা মাতার কোন একটি জীন জোড়ার একটি করে সদস্য পিতা কিংবা মাতার একই জীনের অন্য কোন সদস্যর সাথে তাদের সন্তানদের শরীরে প্রবেশ করে। পিতা বা মাতার জীনগুলোর কোন সদস্য পরবর্তী প্রজন্মে হস্তান্তরিত হবে সেটা একটা টসের মত। আপনার যদি AB রক্তের গ্রুপ হয়, এবং(আপনার একটি A অ্যালীল ও একটি B অ্যালীল থাকে) আর আপনি যদি একটি সন্তানের জন্ম দেন, তাহলে শুধু শতকরা ৫০ শতাংশ সম্ভাবনা আছে সে আপনার A অ্যালীল বা B অ্যালীল পাবে। সুতরাং এক সন্তানের পরিবারে নিশ্চিৎভাবে আপনার কোন না কোন একটি অ্যালীল অবশ্যই হারিয়ে যাবে চিরতরে। মুল ফলাফল হচ্ছে, প্রতিটি প্রজন্মে, পিতা মাতার জীনগুলো একটি লটারীতে অংশ নেয়, যে লটারীর প্রাইজ হচ্ছে পরবর্তী প্রজন্মে হস্তান্তরিত হওয়ার সুযোগ। যেহেতু সন্তানের সংখ্যা সীমিত, সন্তানের শরীরে জীনের উপস্থিতির হার তার পিতা মাতার শরীরে জীনের উপস্থিতির হার একই না। এই জীনগুলো স্যাম্পলিং বা নমুনা বাছাই ঠিক পয়সা দিয়ে টস করার মত। যদি শতকরা ৫০ ভাগ সম্ভাবনা আছে যে কোন টসে একটি নির্দিষ্ট একটি ফলাফল ( যেমন হেড কিংবা টেইল) পাবার, আপনি যদি অল্প কয়েকবার টস করেন তাহলে বেশ বড় একটি সুযোগ আছে আপনি এই প্রত্যাশিত ফলাফল থেকে কিছুটা ভিন্ন ফল পাবেন ( চারবার টসে যেমন আপনার ১২ শতাংশ সুযোগ আছে, হয় হেড বা টেইল পাবার); এবং সেভাবে বিশেষ করে কোন একটি ছোট জনগোষ্ঠীতে, বিভিন্ন অ্যালীলগুলো আনুপাতিক হার শুধুমাত্র চান্সের মাধ্যমে পরিবর্তিত হতে পারে। এবং নতুন মিউটেশন এর মধ্যে তৈরী হতে পারে এবং তাদের নিজেদের উপস্থিতির হারও ওঠা নামা করতে পারে এই  এলোমেলো টস বা র‌্যানডোম স্যাম্পলিং এর কারণে। এবং ধীরে ধীরে এই ’র‌্যানডোম ওয়াক’ এমন কি কোন জীনের উপস্থিতি কোন জনগোষ্ঠীতে স্থির করে দিতে পারে (অর্থাৎ উপস্থিতির হার শতকরা ১০০ শতাংশ )বা বিকল্পভাবে, পুরোপুরি হারিয়ে যেতে পারে।

Continue reading “জেরী কয়েন এর হোয়াই ইভোল্যুশন ইজ ট্রু : পঞ্চম অধ্যায় (দ্বিতীয় পর্ব)”

জেরী কয়েন এর হোয়াই ইভোল্যুশন ইজ ট্রু : পঞ্চম অধ্যায় (দ্বিতীয় পর্ব)